dilmaফড়িং মিডিয়া – আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ব্রাজিলের সিনেটে অভিশংসিত হয়েছেন প্রেসিডেন্ট দিলমা রুসেফ। দেশটির নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিচ্ছেন মিশেল তেমের।

বুধবার আইনসভার উচ্চপরিষদ সিনেটে ৬১-২০ ভোটে রুসেফকে (৬৮) অভিশংসিত করা হয়।এর মধ্যদিয়ে ব্রাজিলে ১৩ বছরের ওয়ার্কার্স পার্টির বাম শাসনের অবসান ঘটল। ২০১৯ সালের ১ জানুয়ারি পর্যন্ত রুসেফের মেয়াদ পূর্ণ করবেন মধ্য-ডান পিএমডিবি পার্টির তেমের।

রুসেফের বিরুদ্ধে সরকারি তহবিলের তথ্যবিকৃতির অভিযোগ রয়েছে। তাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেয়া হয়। তবে অভিশংসিত করার বিষয়টিকে তার প্রতিদ্বন্দ্বীদের অভ্যুত্থান হিসেবে বর্ণনা করেছেন রুসেফ। সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইকেল তেমের এ অভিশংসন প্রক্রিয়ার নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

আজ ৮১ জন সিনেটরের মধ্যে ৬১ জন সিনেটর রুসেফের বিপক্ষে ভোট দিলে তিনি স্থায়ীভাবে প্রেসিডেন্ট পদ হারান এবং আট বছরের জন্য কোনো সরকারি অফিসে কাজের অযোগ্য হন।

স্থায়ীভাবে অপসারিত হওয়ার আগে রুসেফকে ছয় মাসের জন্য বরখাস্ত করে সিনেট। ভাইস প্রেসিডেন্ট তেমের ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেন এবং একটি ব্যবসাবান্ধব মন্ত্রিপরিষদ ঘোষণা করেন।

সিনেটের এই ভোটাভুটির আগে দেশটির কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ তার বিরুদ্ধে অভিশংসন-প্রক্রিয়া শুরুর পক্ষে ভোট দেয়। সিনেটে অভিশংসনের আগে তিনি শেষ চেষ্টা হিসেবে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। কিন্তু আদালত তার আবেদন গ্রহণ করেননি।

দিলমা রুসেফের বিরুদ্ধে মূল অভিযোগ, ২০১৪ সালে পুনর্নির্বাচিত হওয়ার আগে তার হস্তক্ষেপে ক্রমবর্ধমান সরকারি অর্থনৈতিক ঘাটতি চেপে যাওয়া হয়েছে এবং অসত্য তথ্য-উপাত্ত দিয়ে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাড়িয়ে দেখানো হয়েছে। এর মাধ্যমে তিনি দেশের বাজেট আইন ভঙ্গ করেছেন।

একসময় মার্ক্সবাদী গেরিলা ছিলেন রুসেফ। গত শতকের সত্তরের দশকে দেশটির সামরিক শাসনের সময় তাকে কারাগারে নিক্ষেপ করা হয়। রুসেফের অভিশংসনকে কেন্দ্র করে পুরো ব্রাজিল দুই ভাগে ভাগ হয়ে যায়।